মঙ্গলবার, ১৮-ফেব্রুয়ারী ২০২০, ১২:৪৯ অপরাহ্ন
  • অন্যান্য
  • »
  • ‘সমুদ্রকে ঘিরে বাংলাদেশের অর্থনীতির পরিবর্তন আনা সম্ভব’

‘সমুদ্রকে ঘিরে বাংলাদেশের অর্থনীতির পরিবর্তন আনা সম্ভব’

shershanews24.com

প্রকাশ : ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০৯:১১ পূর্বাহ্ন

শীর্ষনিউজ, ঢাকা: সামুদ্রিক সম্পদ রক্ষায় পরিবেশের ক্ষতি না করে পর্যটন সম্প্রসারণে দ্রুত ও কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ করতে সরকার ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ ট্যুরিজম অ্যাক্সপ্লোরারস অ্যাসোসিয়েশন, সেভ আওয়ার সি ও মেরিন জার্নালিস্টস নেটওয়ার্ক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। 
মঙ্গলবার রাজধানীর মেরুল বাড্ডার সেঞ্চুরি সেন্টার মিলনায়তনে ‘পর্যটন সম্ভাবনা বিকাশে পরিবেশ সংরক্ষণ ও সমুদ্র পর্যটন উন্নয়নে করণীয়’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় তারা এ আহ্বান জানান।
বাংলাদেশ ট্যুরিজম অ্যাক্সপ্লোরারস অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম সাগরের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন সেভ আওয়ার সি'র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আনোয়ারুল হক, মেরিন জার্নালিস্টস নেটওয়ার্কের সভাপতি মাহমুদ সোহেল ও বাংলাদেশ ট্যুরিজম ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও ট্রাভেল রাইটার মোখলেছুর রহমান।  
সভাটি সঞ্চালনা করেন বাংলাদেশ ট্যুরিজম এক্সপ্লোরারস অ্যাসোসিয়েশনের পরিচালক (মিডিয়া এন্ড কমিউনিকেশন) কেফায়েত শাকিল। 
সভায় বাংলাদেশ ট্যুরিজম ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও ট্রাভেল রাইটার মোখলেছুর রহমান বলেন, স্থানীয় পরিবেশ কিংবা সংস্কৃতির পরিবর্তন ঘটিয়ে কখনো পর্যটন হতে পারে না। আমাদের পর্যটনকে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরতে হলে আমাদের নিজস্ব পরিবেশ ও নিজস্ব সংস্কৃতির মাধ্যমেই অন্যদের চেয়ে নিজেকে আলাদা হিসেবে প্রমাণ করতে হবে। এজন্য  সরকারের পাশাপাশি পর্যটন সম্পৃক্তদের আন্তরিকতা প্রয়োজন।
সমুদ্র বিষয়ক পরিবেশবাদী সংগঠন সেভ আওয়ার সি'র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আনোয়ারুল হক বলেন, বাংলাদের সমুদ্র উপকূলের নানা সংকট নিয়ে ব্যাপক আলোচনা হলেও সমুদ্রের সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা হয় খুব কম। অথচ শুধুমাত্র সমুদ্রকে ঘিরে বাংলাদেশের অর্থনীতির আমুল পরিবর্তন আনা সম্ভব। বিশেষ করে সমুদ্রভিত্তিক পর্যটন সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশকে পরিচিত করা যায়। এজন্য প্রয়োজন সমন্বিত ও পরিকল্পিত উদ্যোগ গ্রহণ।
মেরিন জার্নালিস্টস নেটওয়ার্কের সভাপতি মাহমুদ সোহেল বলেন, বিশ্বের দরবারে যেকোনো দেশকে পরিচিত করতে পর্যটন হচ্ছে বড় মাধ্যম। দেশকে এগিয়ে নিতে হলে পর্যটনকে এগিয়ে নিতে হবে। তবে এই পর্যটন হতে হবে পরিবেশ বান্ধব। এ জন্য দেশে এখন যারা সমুদ্র, পরিবেশ এবং পর্যটন নিয়ে কাজ করে তাদের আরও সচেতন হতে হবে।
আলাদা সমুদ্র মন্ত্রনালয়ের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, সমুদ্র বিজয়ের পর থেকে এখন পর্যন্ত ১৮টি মন্ত্রনালয় সমুদ্র নিয়ে কাজ করছে। ফলে মন্ত্রনালয়গুলোর মধ্যে সমন্বয়হীনতার কারণে কোনো কাজই সামনে এগুচ্ছে না। দেশের অর্থনীতি ও সমুদ্র প্রতিবেশ ধরে রাখার স্বার্থে আলাদা সমুদ্র মন্ত্রনালয়ের প্রয়োজন।
সভাপতির বক্তব্যে শহিদুল ইসলাম সাগর বলেন, পর্যটন ব্যবসার স্বার্থেই পরিবেশ রক্ষা করতে হবে। বাংলাদেশ ট্যুরিজম এক্সপ্লোরারস অ্যাসোসিয়েশন চায় পরিবেশ রক্ষার মাধ্যমে টেকশই পর্যটন নিশ্চিত করতে। এ কাজে পরিবেশ কর্মী ও সাংবাদিকদের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।
মতবিনিময় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, বিটিইএ'র উপদেষ্টা এম জি আর নাছির মজুমদার, পরিচালক(অপারেশান)কিশোর রায়হান, পরিচালক (রিসার্চ) শাহরিয়ার হোসেন, মেরিন জার্নালিস্টস নেটওয়ার্কের সহসভাপতি কাওছারা চৌধুরী কুমু, কার্যনির্বাহী সদস্য আনিসুল হক, এবং সেভ আওয়ার সি-এর সদস্য ইমাম হাসান সোহেল ও আক্তারুজ্জামান।
শীর্ষনিউজ/জে