সোমবার, ১৪-অক্টোবর ২০১৯, ০১:৪৮ অপরাহ্ন
  • আন্তর্জাতিক
  • »
  • পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি হবেই: কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি 

পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি হবেই: কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি 

shershanews24.com

প্রকাশ : ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১০:০৮ পূর্বাহ্ন

শীর্ষনিউজ ডেস্ক: পশ্চিমবঙ্গে জাতীয় নাগরিক তালিকা বা এনআরসি করতে নরেন্দ্র মোদি সরকার দৃঢ় প্রতিজ্ঞ- মঙ্গলবার বিকেলে কলকাতায় এই কথা জানালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যখন নাগরিক তালিকার বিরুদ্ধে রাস্তায় নামার প্রস্তুতি নিচ্ছেন, তখনই এই হুংকার এলো।
স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানায় জানায়, মোদি সরকারের ১০০ দিন উপলক্ষে কলকাতায় সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন কেন্দ্রীয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী স্মৃতি। সেখানে তুলে ধরেন সাড়ে তিন মাসে মোদি সরকারের সাফল্যের খতিয়ান। কাশ্মীরে ৩৭০ অনুচ্ছেদ বিলোপ থেকে এনআরসি—সব পদক্ষেপকে সরকারের সাফল্য হিসেবে ব্যাখ্যা করেন তিনি।
এনআরসি প্রসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অবস্থান নিয়ে স্মৃতির বক্তব্য, এক সময় ভুয়া ভোটার আটকাতে সচিত্র ভোটার কার্ডের পক্ষে ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এটা মমতার দ্বিচারিতা।
কিন্তু সচিত্র ভোটার কার্ডের আন্দোলনের সঙ্গে এনআরসির কী সম্পর্ক? প্রশ্ন এড়িয়ে স্মৃতির জবাব, ‘‘অনুপ্রবেশকারীদের আটকাতে পশ্চিমবঙ্গসহ গোটা দেশেই নাগরিক তালিকা হবে। এটা বিজেপির ঘোষিত সিদ্ধান্ত।’’
কেন্দ্রীয় পুলিশের প্রতি মমতার দুর্ব্যবহারের প্রসঙ্গও টেনে আনেন স্মৃতি। তিনি বলেন, “বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর এইরূপ ক্রিয়াকলাপের জন্য বাংলার মানুষেরা কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব থেকে যেসব অধিকার দাবি করে তা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। বাংলার নারী, শিশু, কৃষকেরা তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।”
সঙ্গে যোগ করেন, “বিগত লোকসভার ফলাফল প্রমাণ করে দিয়েছে যে বাংলার মানুষ পরিবর্তন চাইছে।”
যে প্রক্রিয়ায় আসামে এনআরসি হয়েছে তার বিরোধিতা করে বৃহস্পতিবার কলকাতায় মিছিল করবে তৃণমূল। মমতারও সেই মিছিলে যোগ দেওয়ার কথা রয়েছে। ইতিমধ্যেই এনআরসির প্রতিবাদে রাজ্যের ব্লকে ব্লকে মিছিল এবং সভা করেছে তৃণমূল। বিধানসভাতেও বিরোধী বাম ও কংগ্রেসের সঙ্গে তৃণমূল ঐকমত্য হয়ে প্রস্তাব পাশ করেছে।
এদিকে আসামের পর এবার সব রাজ্যে বেআইনিভাবে অবস্থান করা বিদেশিদের চিহ্নিত করে ভারত থেকে বের করে দেওয়ার ইঙ্গিত দিলেন দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। রোববার আসামে এক সমাবেশে বলেন, “কেন্দ্র প্রত্যেক বেআইনি অনুপ্রবেশকারীকে দেশ থেকে ছুড়ে ফেলে দেবে।”
সম্প্রতি ঘোষিত নাগরিক তালিকায় আসামে বসবাসকারী ১৯ লাখ লোকের নাম বাদ পড়েছে। যদিও এই সংখ্যা আরও বেশি বলে অনেক দিন ধরে দাবি করে আসছিল বিজেপি।
শীর্ষনিউজ/জে